bdmo-2016-main-banner
Print

ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো ২৮তম এপিএমও

 


আজ এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াড Èএশিয়ান প্যাসিফিক ম্যাথমেটিক্যাল অলিম্পিয়াড (এপিএমও)'-এর ২৮তম আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকার সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজে। এপিএমওর নিয়ম অনুযায়ী অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দেশের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হয়েছে নিজ নিজ দেশে। এপিএমওর সদস্য ২৬টি দেশে একযোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে পৃথিবীর এই সর্ববৃহত্ আঞ্চলিক গণিত অলিম্পিয়াড। তবে ভেৌগোলিক অবস্থান ও সময়ের ব্যবধানের জন্য দেশভেদে কয়েক ঘণ্টার সময় পার্থক্য হয়ে থাকে। সে হিসাবে আমেরিকা অঞ্চলের দেশগুলোর অলিম্পিয়াড হয় ৭ মার্চ বিকেলে এবং বাংলাদেশসহ পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকার দেশগুলোর অলিম্পিয়াড হয় ৮ মার্চ সকালে। ঢাকায় অনুষ্ঠিত এপিএমওতে সারা দেশ থেকে আসা প্রাক-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ১০০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন।

বিভিন্ন দেশে অনুষ্ঠিত হলেও এপিএমওর পরীক্ষা হয় অভিন্ন প্রশ্নে। মূল প্রশ্ন অলিম্পিয়াডে গণিতের পাঁচটি সমস্যা সমাধানের জন্য চার ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়। প্রতিটি প্রশ্নের সর্বোচ্চ মান ছিল ৭। পরে সব শিক্ষার্থীর উত্তরপত্র মূল্যায়ন করে মেধাক্রম নির্ধারণ করা হবে। একই সঙ্গে প্রথম ১০ জনের ফলাফল এবং নমুনা হিসেবে প্রথম, তৃতীয় ও সপ্তম স্থান অধিকারীর উত্তরপত্র কাজাখাস্তান পাঠানো হবে। এবার অলিম্পিয়াডটি সমন্বয় করে কাজাখাস্তান।

দেশের শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি ব্যাংক ডাচ&-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং প্রথম আলোর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশে এপিএমওর আয়োজন করেছে বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি।

 

Print

আগামীকাল ১২ ফেব্রুয়ারি জাতীয় গণিত উত্সব শুরু

Math Final Logo

 

আগামীকাল ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলে শুরু হচ্ছে দুই দিনব্যাপী জাতীয় গণিত উত্সব ২০১৬ ও চতুর্দশ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড। ডাচ&-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি উত্সবের আয়োজন করেছে। সকাল নয়টায় উত্সবের উদ্বোধন করবেন সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলের অধ্যক্ষ ব্রাদার রবি পিউরিফিকেশনস। চলতি বছরের জুলাই মাসে হংকংয়ে অনুষ্ঠেয় ৫৭তম আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের জন্য বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্যদের নির্বাচনের লক্ষ্যে এ বছর সারাদেশের ২৪টি জেলা শহরে আঞ্চলিক গণিত উত্সব অনুষ্ঠিত হয়েছে। আঞ্চলিক উত্সবের ১৩৫০ জন বিজয়ী অংশ নেবে জাতীয় উত্সবে।

বিজয়ীদরে সার্টিফিকেট ও লাল রঙের টি শার্ট পরে আগামীকাল সকাল সাড়ে আটটায় সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুল, আসাদ এভিনিউ, মোহাম্মদপুর ঢাকায় উপস্থতি থাকার জন্য আয়োজকদরে পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। দুইদিনব্যাপি উত্সবে উপস্থিত হন বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সভাপতি অধ্যাপক জামিলুর রেজা চেৌধুরী, সহসভাপতি ড. মুনিবুর রহমান চেৌধুরী, সদস্য অধ্যাপক ড. সুব্রত মজুমদার, সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ, অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, বরেণ্য গণিতবিদ অধ্যাপক খোদাদাদ খান, অধ্যাপক লুত্ফুজ্জামান, বুয়েটের অধ্যাপক আবদুল হাকিম খান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক লায়েক সাজ্জাদ এন্দেল্লাহ, বিজ্ঞানী রেজাউর রহমান, জ্যোতির্বিদ এফ আর সরকার, ডাচ&-বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এস তাবরেজ, উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুল হাসান, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম, কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হক, মনোরোগ চিকিত্সক মোহিত কামাল, বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ ড. মাহবুব মজুমদার ও গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসানসহ দেশবরেণ্য গণিতবিদ, বিজ্ঞানী ও গবেষকরা। দুইদিনের উত্সবে গণিত অলিম্পিয়াড ছাড়াও থাকবে সিসিমপুর, ওয়াটার রকেট উত্ক্ষেপন, সাইকেল স্টান্ট, রুবিকস কিউব ও সুডোকু প্রতিযোগিতা, গণতিরে পট, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বইমেলাসহ নানা আয়োজন। এছাড়াও থাকবে ২০১৫ সালের সেরা গণিত ক্লাব ও আজীবন সম্মাননা প্রদান।

গণিত অলিম্পয়াড ছাড়া উত্সবের সকল পর্ব সবার জন্য উন্মুক্ত।

Print

১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি জাতীয় গণিত উত্সব ২০১৬

 

Math Final Logo

আগামী ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, শুক্র ও শনিবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আসাদগেট এলাকায় অবস্থিত সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলেঅনুষ্ঠিত হবে 'ডাচ্-বাংলা ব্যাংক প্রথম আলো জাতীয় গণিত উত্সব ২০১৬' এবং চতুর্দশ বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড। ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি এই উত্সবের আয়োজন করেছে। চলতি বছরের জুলাই মাসে হংকংয়ে অনুষ্ঠেয় ৫৭তম আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের জন্য বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্যদের নির্বাচনের লক্ষ্যে এ বছর সারা দেশের ২৪টি জেলা শহরে আঞ্চলিক গণিত উত্সব অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৪টি আঞ্চলিক গণিত উত্সব বিজয়ীদের নিয়ে এই জাতীয় আয়োজন।

১২ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার (সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা)

  • উত্সব আগমন সকাল ৮টায়।
  • উত্সবে আঞ্চলিক পর্যায়ের বিজয়ীদের লাল রঙের টি-শার্ট ও বিজয়ী সার্টিফিকেট সঙ্গে আনতে হবে।
  • উত্সবে এসে নিজ অঞ্চলের বুথ থেকে সকাল ৮.৪৫ মিনিটের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  • উদ্বোধনী পর্ব সকাল ৯টা।
  • প্রাইমারি ২ ঘণ্টা, জুনিয়র ৩ ঘণ্টা এবং সেকেন্ডারি ও হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরির পরীক্ষার সময় ৪ ঘণ্টা।
  • পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবে না।
  • পরীক্ষার হলে কলম, পেনসিল ও জ্যামিতি বক্স সঙ্গে আনতে হবে।

এছাড়া সুডোকু প্রতিযোগিতা, সিসিমপুরের পরিবেশনা, সাইকেল স্টান্ট, ওয়াটার রকেট উত্ক্ষেপন, মজার বিজ্ঞানসহ নানা আয়োজনে মুখর থাকবে উৎসবের প্রথম দিন।

 

১৩ ফেব্রুয়ারি, শনিবার (সকাল ৮.৩০টা থেকে বেলা ১২.৩০টা)

  • আগমন সকাল ৮.৩০টায়।
  • সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী ৯.৩০টা থেকে বেলা ১২.৩০ মিনিট পর্যন্ত।

এছাড়া রুবিকস কিউব প্রতিযোগিতা, গণিত সংসদ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, গণিতের পট সহ নানা আয়োজন মুখর থাকবে সমাপনী দিন।

 

apmoimoimo-logo-2016